লেটেস্ট খবরবিনোদনভাইরাললাইফ স্টাইলঅফবিটরেসিপি

সব লড়াই শেষে না ফেরার দেশে পাড়ি দিলেন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা

ধারাবাহিক জগতের বিখ্যাত অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা (Oindrila Sharma)। প্রায় এক বছরের কাছাকাছি সময় ধরে ক্যানসারের মতো মারণরোগের সাথে লড়াই করেছেন তিনি। সেই সময় পাশে পেয়েছিলেন ...

Published on:

ধারাবাহিক জগতের বিখ্যাত অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা (Oindrila Sharma)। প্রায় এক বছরের কাছাকাছি সময় ধরে ক্যানসারের মতো মারণরোগের সাথে লড়াই করেছেন তিনি। সেই সময় পাশে পেয়েছিলেন পরিবারকে। আরও একজন নিরন্তর তার পাশে ছিলেন। তিনি হলেন ঐন্দ্রিলা শর্মার প্রেমিক বিখ্যাত অভিনেতা সব্যসাচী চক্রবর্তী (Sabyasachi Chakrabarty)। প্রবল শারীরিক কষ্ট সহ্য করলেও মানসিক কষ্ট সহ্য করতে হয়নি তাকে। এর কারণ সব্যসাচীর ভালোবাসা ও কেয়ার।

WhatsApp Group   Join Now
Telegram Group   Join Now

ধীরে ধীরে ক্যামেরার সামনে ফিরছিলেন তিনি। জি বাংলা অরিজিনাল এর ফিল্ম “ভোলে বাবা পার করেগা” (Bhole Baba Par Karega) তে অনির্বাণ চক্রবর্তী (Anirban Chakrabarty) র মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। এহেন অভিনেত্রীর জীবনে ফের ঘনিয়ে এসেছে শারীরিক কষ্ট। বর্তমানে ভেন্টিলেশনে রয়েছেন তিনি। মঙ্গলবার রাতে হঠাৎই ব্রেন স্ট্রোক হয় তার। তাই কোমায় ছিলেন তিনি। এরপর বাঁ হাত সামান্য নড়াচড়া করতে পারছিলেন। আর চোখ নড়ছিল তার। “ভাগাড়” (Vagar) সিরিজে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে কাজ করেছেন তিনি। এই মাসেই দিল্লি যেতেন ঐন্দ্রিলা। সেই মতো শ্যুটিং থেকে ছুটি নেওয়ারও কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই ঘটল এই বিপত্তি।

সাময়িক ধাক্কা কাটিয়ে অবশেষে সোশ্যাল মিডিয়ার মুখ খুলেছিলেন সব্যসাচী চক্রবর্তী। তিনি তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে লিখেছিলেন, “ঐন্দ্রিলার বিষয়ে অযথা নেতিবাচক খবর ছড়ানো বন্ধ করুন। কিছু নিম্নমানের তথাকথিত মিডিয়ার ভুয়ো খবরে নিজেদের বিভ্রান্তি বাড়াবেন না। অথবা ওর বাড়ির লোককে বিরক্ত করবেন না। আমি এখনও অবধি কোনও সংবাদমাধ্যমের সাথে যোগাযোগ করিনি, সাক্ষাৎকার দিইনি, দেবও না। শুধু জেনে রাখুন মেয়েটা লড়ে যাচ্ছে, সাথে লড়ছে একটা গোটা হাসপাতাল। নিজের হাতে করে নিয়ে এসেছিলাম, নিজের হাতে ওকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যাব। এর অন্যথা কিছু হবে না।”

ঐন্দ্রিলার প্রতি সব্যসাচীর এই দায়িত্ব, কর্তব্য, ভালবাসা দেখে বর্তমান জেনারেশনকে অবাক হতেই হচ্ছে। যেই সময় বিশ্বাস ভাঙার, ভালোবাসায় কষ্ট দেওয়ার প্রচুর নজির আমরা দেখতে পাচ্ছি। সেখানেই এমন পবিত্র, নিষ্পাপ ভালবাসা দেখতে পাওয়া সত্যিই দুষ্কর। বুধবার সকালে আবার হার্ট অ্যাটাক হয় তার।  ঐন্দ্রিলা শর্মার যুদ্ধ আরও কিছুটা কঠিন হয়েছিল। চিকিৎসায় আর আগের মতো সাড়া দিচ্ছিলেন না তিনি। তারকা থেকে শুরু করে অনুগামী সকলেই তাকে উদ্দেশ করে খোলা চিঠি লেখেন। প্রত্যেকেরই আবেদন, প্রার্থনা তার সুস্থ হয়ে ফিরে আসার।

কিন্তু এমন সঙ্কটজনক অবস্থায় হঠাৎই স্যান্ডি সাহা, শ্রীতমা দে -এর মতো সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন যে ঐন্দ্রিলা শর্মা আর নেই। এতে কিছুক্ষণের জন্য সকলে ভেঙে পড়লেও কিছু পর জানা যায় তিনি এখনও বেঁচে আছেন। কিন্তু এবার ঘটল ছন্দ পতন। শনিবার রাতে 10 বার হার্ট অ্যাটাক হয় তার। এরপর ডাক্তারদের হাজার চেষ্টা, অনুগামী ও পরিবারের মানুষদের প্রার্থনা সব বৃথা করে তিনি চলে গেলেন চির অনন্তের পথে।

About Author